গাজীপুরে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের নামে এলাকাবাসীর টাকা লুট। Gazipur City Corporation

91

গাজীপুরে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের নামে এলাকাবাসীর টাকা লুট। অভিযোগ কাউন্সিলর এর বিরুদ্ধে । রাস্তা ও বাসাবাড়িতে মাত্র সাড়ে পাঁচশো টাকায় দেয়া হবে সিসি ক্যামেরা। অবিশ্বাস্য এমন লোভনীয় আশ্বাস দিয়ে স্থানীয়দের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের এক কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে। দেড় বছরেও ক্যামেরা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। সরকার যখন পুরো দেশকে ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনছে, ঠিক সে সময় জনগণের টাকায় নগর ডিজিটাল করার নামে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে। ২ হাজার ১৯ সালে নগরীর মেঘডুবি, খোরাইদ, কুদাবের বাসিন্দাদের অনেকটা বাধ্য করে টাকা তুলেন তিনি। সে সময় দেয়া রশিদে সিটি করপোরেশন ও এনটচ নামে একটি এনজিও’র লোগো ও স্বাক্ষর রয়েছে। আশ্বাস দেয়া হয় মাত্র সাড়ে পাঁচশো টাকায় তিন মাসের মধ্যে বাসা ও রাস্তার সামনে সিসি ক্যামেরা সরবরাহ করা হবে। দেড় বছরেও আশ্বাস আলোর মুখ না দেখায় হতাশ ভুক্তভোগীরা। তাদের মধ্যে কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শুরু করে বিভিন্নভাবে সরব হচ্ছেন। ভুক্তভোগীদের এলাকাবাসীদের একজন বলেন, ‘কাগজ হাতে আছে কিন্তু সিসি ক্যামেরা হাতে নেই।’

ওয়ার্ড কাউন্সিলরের এ অনিয়মের ব্যাপারে বাসায় দুঘণ্টা বসিয়ে রেখেও সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম কোন বক্তব্য দেননি। তবে নানা অজুহাত দেখিয়ে অভিযুক্ত কাউন্সিলর দ্রুত সময়ের মধ্যে টাকা ফিরিয়ে দেয়ার আশ্বাস দেন। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৪০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আজিজুর রহমান শিরিষ বলেন, ‘করোনার জন্য টাকা ফেরত দেওয়া হয়নি। যাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছি তাদের টাকা ফেরত দিয়ে দেব।’ ৯টি গ্রামের ২২ হাজার বাসিন্দা নিয়ে সিটি করপোরেশনের চল্লিশ নম্বর ওয়ার্ড। অভিযুক্ত কাউন্সিলরের দাবি এখন পর্যন্ত তিনটি গ্রাম থেকে টাকা তুলেছেন।

Categories News & Politics
Tags

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Skip to toolbar